জীবনী

পাকিস্তানের নাগরিক “খান বাবা” যেনো এক জীবন্ত বিস্ময়!

বেশকিছু দিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তোলেন পাকিস্তানের এক নাগরিক। যাকে সবাই এক নামে “খান বাবা” বলে চিনে থাকে। অতিরিক্ত ওজন এবং শক্তির জন্যেই আলোচনায় আসেন এই ব্যাক্তি।   শক্তিশালী এই মানুষটি এখন পাকিস্তানের ‘মিনি স্টার’। রোজই তাকে দেখতে ভিড় করেন শতাধিক মানুষ।

কিন্তু কে এই খান বাবা? তাকে নিয়ে কেনোই বা এত হৈ হুল্লোড়!

খান বাবা নামে পরিচিত এই ব্যাক্তির আসল নাম আরবাব খিজির হায়াত। যদিও এই নামে তাকে খুব কম মানুষ ই চিনে থাকে। তিনি বেশি পরিচিত ‘খান বাবা’ নামেই। পেশাগত দিক দিয়ে খান বাবা একজন ব্যবসায়ী। ফ্যাক্টরি, মার্কেট এবং পেট্রোল পাম্প আছে তার।

সম্প্রতি খান বাবা দাবী করে বসেছেন, তিনিই বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী মানুষ। খান বাবা নামে পরিচিত এই মোটাসোটা ব্যক্তিটি দেখতে অনেকটা সিনেমার হাল্ক চরিত্রের মত বলে অনেকে তাকে ‘দ্য হাল্ক’ নামেও ডাকেন।

বাস্তবের এই হাল্ক এর বসবাস পাকিস্তানের উত্তর পশ্চিমের শহর মর্দানে। শক্তিশালী এই ব্যাক্তিটির বয়স মাত্র ২৫ বছর। জানা গেছে, বিশাল দেহের এ মানুষটির ওজন ৪৩৫ কেজির ও বেশি। উচ্চতার হিসেবে প্রায় ৬ ফুট তিন ইঞ্চি লম্বা এই খান বাবা। স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে প্রতিদিন মোট ১০ হাজার কিলোক্যালোরি খাবার খান তিনি। তার খাবার তালিকায় রয়েছে, ৩৬টি ডিম, ৩ থেকে ৫ কেজি মাংস আর ৫ লিটার দুধ।

অতিরিক্ত ওজনের অধিকারী হলেও তিনি সবকিছুই অনায়াসে করতে পারেন। দৈনন্দিন কাজে কোন প্রকার সাহায্যের দরকার হয়না তার। দড়ি দিয়ে ট্রাক্টর টেনে নিয়ে যাওয়া, এক হাতে মানুষ তোলা, ১০ হাজার পাউন্ড পর্যন্ত ওজন তোলা— এ সবই খান বাবার ‘বাঁ হাতের খেল’।

অধিক স্বাস্থ্য অসুস্থতার কারণ হয় বলে অনেকেই জানি আমরা। তবে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, অতিরিক্ত ওজন ছাড়া খান বাবার অন্য কোনো শারীরিক সমস্যা নেই। প্রতিদিন সকাল ৭ টায় দিন শুরু হয় তার। নিয়মিত শারীরিক ব্যায়াম করতে ভুলেন না তিনি।

তবে ৩ বছর আগে বেশ সমালোচিত হয়েছিলেন এই ব্যাক্তি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিলো একটি ভিডিও। যেখানে হাতে বন্দুক নিয়ে ভারতীয় সেনাপ্রধানকে কুরুচিকর ভাষায় আক্রমণ করেছেন পাকিস্তানের এই নাগরিক। ভিডিও তে ‘বন্দুক নয়, তোমাদের জন্য হাতই যথেষ্ট’ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন খিজার হায়াত খান ওরফে খান বাবা। এমনকী ভারতের ‘হিরোশিমার থেকেও খারাপ হাল’ করার হুমকি দিয়েছেন তিনি। এতে করে অনেকেই ক্রুদ্ধ হয়ে যায় তার প্রতি।

বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়ানো খান বাবার অন্যতম প্রিয় একটি কাজ। বিশাল এই শরীরের নিরাপত্তা দিতে খিজির হায়াত রেখেছেন ব্যাক্তিগত গান ম্যান । খেলতে খুবই পছন্দ করেন খানা বাবা। সবচেয়ে অদ্ভুত ব্যাপার হচ্ছে, তিনি আজ অব্দি যা কিছুতে হাত দিয়েছেন সব ই তুলতে পেরেছেন। ভারোত্তোলনেও আগ্রহ দেখা যায় তার। তার সংগ্রহে আছে ৪০০ কেজি ভারোত্তোলনের রেকর্ড।

ইসলাম ধর্ম এবং নিজ দেশ পাকিস্তানের প্রতি বিশেষ দূর্বলতা রয়েছে তার। তাই এই দুটো নিয়ে কেউ কোনো কটুক্তি করলে প্রচন্ড ক্ষেপে যান তিনি।

খান বাবার ইচ্ছে, তিনি একজন রেসলার হবেন। ডব্লুউডব্লুউই-র মঞ্চে যাওয়াই এখন তাই তার একমাত্র স্বপ্ন। আবার জনসেবার উদ্দেশ্যে রাজনীতিতে আসার ইচ্ছেও প্রকাশ করেছেন এই ব্যাক্তি।

পাকিস্তানি এই হাল্ক কে দেখতে প্রায় প্রতিদিন ই তার মার্দান শহরের বাড়িতে ভীড় লেগে থাকতে। আর সবার অনুরোধে খুশি মনেই বিভিন্ন কসরত দেখান এই জীবন্ত বিস্ময়।

Show More

এই জাতীয় আরো পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Check Also
Close
Back to top button