জাতীয়সাম্প্রতিক
Trending

সকল পুলিশ নিন্দার প্রাপ্য নয়,কিছু পুলিশ মানবিকও হয়

শুধু নিন্দাই প্রাপ্য নয় । পুলিশ যে মানবিক কাজ করলে, দেশের মানুষের পাশে দাড়ালে বাঙালি জনগণ তাদের উচ্চকিত প্রশংসাতেও ভাসাবে আলোচ্য ঘটনাটি বোধহয় এরই দৃষ্টান্ত।

গত কয়েকদিন যাবৎ সামাজিক বিভিন্ন যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে একটি ভিডিও খুব বেশি ছড়িয়ে পড়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে একজন পুলিশের কাছে একজন রিকশাওয়ালা হাত উচিয়ে সালাম দেন, এরপর রিকশাওয়ালা পুলিশ সদস্যটিকে তার খাবারের টাকা এখনো জুটেনি জানালে পকেট থেকে কিছু টাকা বের করে দেন সে পুলিশ সদস্য টি।

ঘটনাটি নরসিংদী সড়কের ঢাকা-সিলেট সংলগ্ন জেলখানা মোড় এলাকার। ভিডিওতে দেখা যাওয়া পুলিশ সদস্যটি হলেন সোহাগ হোসেন। ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ার পর পুলিশ সদস্য সোহাগ কে প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন বাঙালি জনগণ।

রিকশাওয়ালার ভাষ্য মতে; এক ব্যাক্তি রিকশাভাড়া নিয়ে এক ঘন্টা দাড় করিয়ে রেখে ভাড়া না দিয়ে চলে গেছেন যার কারণে তার কাছে খাবারের টাকাও ছিলো না।

পুলিশ সদস্য সোহাগ বলেন; তার কাছে নাশতা খাওয়ার টাকা চান ওই রিকশাওয়ালা। ষাটোর্ধ্ব এ লোকটি আজো নিজের কাজ নিজে করছে দেখে তাকে নিজ থেকে কিছু সম্মান করেছি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ভিডিওটি পোস্ট করা শিক্ষার্থী হলেন স্বপন শেখ। সিসিটিভি ক্যামেরাতে তিনি কোন এক রিকশাওয়ালা কে পুলিশ সদস্যের টাকা দেওয়া দেখে অবাক হন। বিস্তারিত ঘটনা জানার পর তিনি ভিডিওটি ডাউনলোড করে ফেইসবুকে পোস্ট করেন। পুলিশের ভালো কাজ সকলের কাছে ছড়িয়ে দিতেই তিনি এ কাজটি করেছেন বলে জানান।

পুলিশ সদস্য সোহাগের জন্ম নারায়ণগঞ্জে৷ তিনি ২০১১ সালের আগস্টে পুলিশে যোগদান করেন৷ গত এক বৎসর যাবৎ তিনি নরসিংদী পুলিশ লাইন্সে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। কোন সময় ট্রাফিকের সংকট পড়লে ট্রাফিক পুলিশের দায়িত্ব পালন করে থাকেন সোহাগ।

পুলিশ সদস্য সোহাগ হোসেনের এ কাজটি, বাঙালি জনগণকে মানুষের বিপদে তার পাশে দাড়ানোর প্রতি আরো বেশি আগ্রহী করে তুলবে এ আশা ব্যাক্ত করে আজকের মতো শেষ করছি।

মুহাম্মদ মুহিব্বুল্লাহ খাঁন [ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ]

আরো পড়ুন;

পাপ নাকি বাপকেও ছাড়ে নাঃ একটি বার্মিজ উপাখ্যান; https://cutt.ly/ezuVdaF

Show More

MK Muhib

A researcher,An analyst,A writer,A social media activist,student at University of dhaka.

এই জাতীয় আরো পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button