জাতীয়সাম্প্রতিক

হ্যাপি বার্থডে ‘মি. ডিপেন্ডেবল’ মুশির ৩৩তম জন্মদিন আজ

সময়ের অন্যতম সেরা উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিমের ৩৩ তম জন্মদিন আজ। দলের অনুশীলনে অন্য সবার চেয়ে বেশি সিরিয়াস মুশফিক, সবার আগে মাঠে এসে যথারীতি বের হন সবার পরে।

পরিশ্রম এবং ডেডিকেশনের দিক থেকে তরুণ ক্রিকেটারদের জন্য তিনি অনুকরণীয় ব্যক্তিত্বও বটে।

১৯৮৭ সালের ৯ মে বগুড়ার মাটিডালিতে মুশফিকের জন্ম। তার প্রকৃত জন্মতারিখ ৯ মে হলেও সার্টিফিকেটে তা ৯ জুন। সেজন্য জন্মদিন এলেই ভক্তবৃন্দের মাঝে দারুণ দোটানা তৈরি হয়। তবে মুশফিক নিশ্চিত করেছেন ৯ মে ই তার আসল জন্মতারিখ।

২০০৫ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটাঙ্গনে পা রাখেন মুশফিকুর রহিম। সেবছর দলের বেকআপ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে ইংল্যান্ডে ১৭ বছর বয়সে প্রস্তুতি ম্যাচে সাসেক্সের বিপক্ষে ৬৩ রানের ইনিংস এরপর নটিংহ্যাম্পশায়ারের বিপক্ষে অপরাজিত ১১৫* রানের ইনিংস খেলেন।

তার একবছর পর লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডেই অভিষেক হয় ১৮ বছর বয়সী মুশফিকুর রহিমের। অভিষেকের ঐ টেস্ট ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ৫৬ বল মোকাবিলায় করেন ১৯ ও দ্বিতীয় ইনিংসে আউট হন ৩ রান করে।

তার পরের বছর ৬ আগস্ট হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জাতীয় দলের হয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে অভিষেক হয়। তার পর থেকে কঠোর অধ্যবসায় ও পরিশ্রম দিয়ে নিজেকে পরিণত করেছেন বিশ্বমানের ব্যাটসম্যানে, হয়েছেন বাংলাদেশ দলের নির্ভরতার প্রতীক। ফলে ভক্তদের কাছ থেকে পেয়েছেন ‘মি. ডিপেন্ডেবল’ খেতাব।

২০০৯ সালের আগস্ট থেকে ২০১০ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত মুশফিকুর রহিম দলের সহকারী ক্যাপ্টেন ছিলেন।২০১১ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ছিলেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক। তার অধীনে বাংলাদেশ টেস্টে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, শ্রীলংকার মত পরাশক্তিদের। সর্বমোট ৩৭টি ওয়ানডে, ৩৪টি টেস্ট এবং ২৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মুশফিক।

বাংলাদেশের হয়ে এখন পর্যন্ত ৭০টি টেস্ট খেলেছেন মুশফিক। দেশের ইতিহাসের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিয়ান এবং এখন পর্যন্ত একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে ৩টি ডাবল সেঞ্চুরি করা মুশফিক মোট ৭টি সেঞ্চুরি ও ২১ হাফ সেঞ্চুরিতে ৩৬.৪৭ গড়ে রান করেছেন ৪৪১৩।

ওয়ানডে ফরম্যাটে খেলে ফেলেছেন ২১৮টি ম্যাচ। একদিনের ক্রিকেটেও এখনও পর্যন্ত হাঁকিয়েছেন টেস্টের সমান ৭টি সেঞ্চুরি। সবমিলিয়ে ৩৬.৩১ গড়ে করেছেন ৬১৭৪ রান, ফিফটি মোট ৩৮টি।

টি-২০ ফর্মেটে কিছুটা নিস্প্রভ এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান।এখন পর্যন্ত ৮৬ ম্যাচে ২০.০৩ গড়ে করেছেন ১২৮২ রান।

মুশফিকের ব্যাট ধরেই অনেক সাফল্য পেয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট। ভক্তদের প্রত্যাশা আরও বেশ কয়েকবছর জাতীয় দলকে সার্ভিস দেয়ার মধ্য দিয়ে দেশের ক্রিকেটের জন্য রেখে যাবেন অনন্য অবদান।
এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানের ৩৩তম জন্মদিনে
এএফবি ডেইলি এর পক্ষ থেকে জানাই শুভকামনা।

Show More

এই জাতীয় আরো পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button